নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায় এর জীবনী |Narayan Gangapadhyay biography in Bengali


ভূমিকা: রবীন্দ্র-পরবর্তী বাংলা কথাসাহিত্যের লেখকদের মধ্যে নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায় অন্যতম। উপন্যাস, ছোটোগল্প, নাটক, প্রবন্ধ, শিশুসাহিত্য, কবিতা—সর্বত্রই তিনি তাঁর কৃতিত্বের উজ্জ্বল স্বাক্ষর রেখে গেছেন। মানবিক সম্পর্ক, বাংলার প্রকৃতি, ইতিহাসের কাহিনি তাঁর লেখায় গুরুত্ব পেয়েছে। বাংলা সাহিত্যে তিনি একজন রোমান্টিক লেখক হিসেবে পরিচিত।


নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায় এর জন্ম ও শৈশব ( (Birth and Childhood of Narayan Gangopadhyay)

জন্ম ও শৈশব: নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়ের প্রকৃত নাম ছিল তারকনাথ গঙ্গোপাধ্যায়। ১৯১৮ খ্রিস্টাব্দের ৪ ফেব্রুয়ারি অবিভক্ত বাংলার দিনাজপুরের বালিয়াডিঙিতে (বর্তমানে বাংলাদেশের অন্তর্গত) তাঁর জন্ম হয়। তাঁদের আদি নিবাস ছিল বরিশাল জেলার বাসুদেবপুরের নামচিড়া গ্রামে। লেখকের পিতা প্রমথনাথ গঙ্গোপাধ্যায় পুলিশ আধিকারিক হওয়ায় পিতার কর্ম সূত্রে বাংলাদেশের বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ঘুরে তাঁর শৈশব কাটে।

নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায় এর ছাত্রজীবন ( Student Life of Narayan Gangopadhyay)

ছাত্রজীবন: পিতার বদলির চাকরির জন্য নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়ের ছাত্রজীবনের দিনগুলি কেটেছে দিনাজপুর, ফরিদপুর, বরিশাল এবং কলকাতায়। ১৯৩৩ খ্রিস্টাব্দে দিনাজপুর জেলা স্কুল থেকে তিনি ম্যাট্রিক পাস করেন। এরপর ফরিদপুরের রাজেন্দ্র কলেজে ভরতি হলেও ১৯৩৫-এ রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে তাঁকে শহর ছাড়তে হয়। সেসময় সন্দেহভাজন বিপ্লবী হিসেবে অন্তরীণ থাকায় তিনি কলেজের পরীক্ষাও দিতে পারেননি। পরে বরিশালের বি.এম. কলেজের দ্বিতীয় বর্ষে ভরতি হয়ে ১৯৩৬-এ নন-কলেজিয়েট পরীক্ষার্থী হিসেবে তিনি কলাবিভাগে ইন্টারমিডিয়েট পাস করেন। ১৯৩৮-এ তিনি ওই কলেজ থেকেই ডিস্টিংশন নিয়ে বিএ পাস করেন। এই বি.এম. কলেজেই তিনি স্বনামধন্য কবি জীবনানন্দ দাশকে তাঁর শিক্ষক হিসেবে পেয়েছিলেন। ১৯৪১-এ নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায় কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমএ পাস করেন এবং এই পরীক্ষায় অসামান্য ফলাফলের জন্য তিনি ব্র্যময়ী স্বর্ণপদক লাভ করেন। ১৯৬০ খ্রিস্টাব্দে তিনি এই বিশ্ববিদ্যালয় থেকেই ডক্টরেট ডিগ্রি লাভ করেন।

নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায় এর কর্মজীবন (Career of Narayan Gangopadhyay)

কর্মজীবন: এমএ পাস করার পর নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায় অধ্যাপনাকেই নিজের পেশা হিসেবে বেছে নেন। জলপাইগুড়ি কলেজে ১৯৪২-’৪৫ পর্যন্ত পড়ানোর পর তিনি কলকাতার সিটি কলেজে ১৯৪৫-৫৫ পর্যন্ত অধ্যাপনা করেন। ১৯৫৬ খ্রিস্টাব্দ থেকে তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা শুরু করেন। 

নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায় এর সাহিত্য জীবন ( Literary Life of Narayan Gangopadhyay)

সাহিত্য জীবন: ছাত্রাবস্থাতেই নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়ের সাহিত্যপ্রতিভার বিকাশ ঘটে। এই সময় থেকেই তিনি কবিতা লিখতে শুরু করেন। কিন্তু পরবর্তীকালে ছোটোগল্প, উপন্যাস, নাটক ইত্যাদি সাহিত্যকর্মের জন্যই তাঁর খ্যাতি ছড়িয়ে পড়ে। তাঁর প্রথম গল্পটি “বিচিত্রা' পত্রিকায় প্রকাশিত হয়।

• উপন্যাস—নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিখ্যাত উপন্যাসগুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য— 'উপনিবেশ' (৩ খণ্ডে, ১৯৪৪-৪৭), 'সম্রাট ও শ্রেষ্ঠী' (১৯৪৪), 'মন্দ্রমুখর' (১৯৪৫), 'মহানন্দা', ‘স্বর্ণসীতা’ ‘নিশিযাপন', 'শিলালিপি', 'ট্রফি' (১৯৪৯), ‘লালমাটি’, ‘কৃষ্ণপক্ষ’ (১৯৫১), ‘বিদূষক', ‘বৈতালিক’ (১৯৫৫), 'অসিধারা' (১৯৫৭), 'ভাটিয়ালি’, ‘পদসঞ্চার’, ‘অমাবস্যার গান’, ‘আলোকপর্ণা' প্রভৃতি।

• গল্পগ্রন্থ—তাঁর গল্পগ্রন্থগুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল— ‘গল্পসংগ্রহ’, ‘সাপের মাথায় মণি’, ‘শ্রেষ্ঠ গল্প', 'স্বনির্বাচিত গল্প’। • নাটক—নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়ের লেখা বিখ্যাত নাটকগুলি হল—‘রামমোহন’, ‘ভাড়াটে চাই', 'আগন্তুক’, ‘পরের উপকার করিও না' ইত্যাদি।

শিশু-কিশোর সাহিত্য—শিশু-কিশোর সাহিত্যেও নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়ের অবদান অসামান্য। তাঁর ছুটির আকাশ', ‘খুশির হাওয়া', ‘পঞ্চাননের হাতি', 'গল্প বলি গল্প শোন’, ‘অব্যর্থ লক্ষ্যভেদ', 'সপ্তকাণ্ড' ছোটোদের জন্য লেখা গল্প। তবে শিশু কিশোরদের জন্য তাঁর অমর সৃষ্টি ‘পটলডাঙার টেনিদা'। তিনি কিছু রহস্য এবং অ্যাডভেঞ্চারের কাহিনিও লিখেছেন, যেমন— “চারমূর্তি’, ‘টেনিদা ও সিন্ধুঘোটক, ‘ঝাউ বাংলোর রহস্য', ‘কম্বল নিরুদ্দেশ' ইত্যাদি।

• কলাম—'সুনন্দ' ছদ্মনামে সাপ্তাহিক 'দেশ' পত্রিকায় তিনি ‘সুনন্দর জার্নাল' নামে একটি কলাম লিখতেন।

• প্রবন্ধ—তাঁর অন্যান্য প্রবন্ধগ্রন্থ হল 'সাহিত্য ও সাহিত্যিক’, 'সাহিত্যে ছোটোগল্প' (১৯৫৫), 'কথাকোবিদ রবীন্দ্রনাথ' (১৯৬৫), ‘ছোটোগল্পের সীমারেখা' (১৯৬৯), 'বাংলা গল্প বিচিত্রা' ইত্যাদি। 

নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায় এর সম্মান ও স্বীকৃতি ( Honor and recognition of Narayan Gangopadhyay)

 সম্মান ও স্বীকৃতি: বাংলা সাহিত্যে অসামান্য অবদানের জন্য নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায় ১৯৪৬-এ আনন্দ পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৬৮ খ্রিস্টাব্দে সাপ্তাহিক বসুমতীর পক্ষ থেকে তাঁকে সম্মানিত করা হয়। 

নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায় এর মৃত্যু (  Narayan Gangopadhyay end of life )

জীবনাবসান: ১৯৭০ খ্রিস্টাব্দের ৬ নভেম্বর কলকাতায় নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়ের জীবনাবসান হয়।

আরোও পড়ুন '- বাংলায় লিও তলস্তয় এর জীবনী | Leo Tolstoy Biography in Bengali

নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়ের সম্পর্কে কিছু প্রশ্ন ও উত্তর : 

1. বাংলা সাহিত্যের  রোমান্টিক লেখক হিসেবে কে পরিচিত ?

উত্তর : নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়

2.নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়ের প্রকৃত নাম কি ? 

উত্তর : তারকনাথ গঙ্গোপাধ্যায়

3. নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়ের বাবার নাম কি ?

উত্তর : প্রমথনাথ গঙ্গোপাধ্যায় 

4. নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়ের প্রথম গল্প কোন পত্রিকায় প্রকাশিত হয় ?

উত্তর : বিচিত্রা পত্রিকায় প্রকাশিত হয়।

5. নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায় এর মৃত্যু কত সালে হয় ?

উত্তর : ১৯৭০ খ্রিস্টাব্দের ৬ নভেম্বর







একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ